প্রচ্ছদ

এমসি কলেজে গণধর্ষণ: এখনও ধরাছোয়ার বাইরে ছাত্রলীগ

2020/09/26/_post_thumb-2020_09_26_16_16_26.jpg
মহামারি করোনায় যখন দেশের মৃ্ত্যুর মিছিল চলছে, অজানা আতঙ্কে দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান যখন বন্ধ রাখা হয়েছে তখনও থেমে নেই ছাত্রলীগের নির্মমতা। এই ক্যাম্পাস বন্ধকালীন সময়ও এমসি কলেজের ছাত্রাবাসে স্বামীকে আটকে স্ত্রীকে গণধর্ষণের মত ঘটনা ঘটিয়েছে ছাত্রলীগ। এ ঘটনায় প্রতিবাদে উত্তাল ক্যাম্পাস। কিন্তু এখনও পর্যন্ত কোন ধর্ষককে গ্রেফতার করতে পারিনি পুলিশ।

শুক্রবার রাতে এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে স্বামীকে বেঁধে রেখে স্ত্রীকে ধর্ষণ করে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। খবর পেয়ে রাত সাড়ে ১০টার দিকে ওই দম্পতিকে ছাত্রাবাস থেকে উদ্ধার করে পুলিশ। পরে ধর্ষণের শিকার তরুণীকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওসিসি সেন্টারে ভর্তি করা হয়। ধর্ষণের ঘটনায় মামলা দায়ের করেছেন ভুক্তভোগীর স্বামী।

এ ঘটনায় শনিবার সকালে ৬ জনের নামোল্লেখ করে অজ্ঞাত আরও ২/৩ জনকে অভিযুক্ত করে নগরের শাহপরান থানায় এ মামলা করা হয়।  কিন্তু এখনও পর্যন্ত ধর্ষকদের কাওকেই গ্রেঢতার করতে পারিনি পুলিশ।

এ ঘটনায় ক্যাম্পাস জুড়ে বিক্ষোভ করছে সাধারণ শিক্ষার্থীরা। শিক্ষার্থীরা অভিযোগ করেন, করোনা পরিস্থিতিতে কলেজ বন্ধ থাকার পরেও কর্তৃপক্ষ কীভাবে ছাত্রাবাস খোলা রাখেন। কর্তৃপক্ষের অবগত থাকার পরেও কেন ছাত্রাবাস বন্ধ করে দেয়া হল না। যে কারণে ঐতিহ্যবাহী বিদ্যাপিঠে কলঙ্কের দাগ লেগেছে বলে মনে করেন তারা।

এসময় শিক্ষার্থীরা গণধর্ষণের ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতার ও বিচার দাবি করেন। অন্যথায় তারা আরও কঠোর কর্মসূচি ঘোষণা করবেন বলে হুশিয়ারি দেন।

এদিকে ধর্ষকদের গ্রেফতারের তৎপরতা না থকলেও  বিক্ষোভকারীদের ঠেকাতে ছাত্রাবাসে বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

মন্তব্য